Latest news

নব নিয়োগপ্রাপ্ত উপজেলা প্রশিক্ষকদের র‍্যাঙ্ক-ব্যাজ পড়িয়ে দেন জেলা কমান্ড্যান্ট মুহাম্মদ মেহেদী হাসান, পিএএম।

রবিবার, ৩০ আগস্ট ২০২০ | ১১:৩১ অপরাহ্ণ | 476 বার

নব নিয়োগপ্রাপ্ত উপজেলা প্রশিক্ষকদের র‍্যাঙ্ক-ব্যাজ পড়িয়ে দেন জেলা কমান্ড্যান্ট মুহাম্মদ মেহেদী হাসান, পিএএম।

দেশের প্রত্যেকটি মানুষের এগিয়ে চলার পথ সুগম করে প্রশিক্ষণ, প্রশিক্ষণ মানুষের বিবেককে জাগ্রত করে। প্রশিক্ষণের মাধ্যমে গণকর্মচারির মধ্যে পেশাদারিত্বের সৃষ্টি হয়, ব্যক্তিগত শৃংখলার মান উন্নত হয়। প্রশিক্ষিত কর্মী প্রশিক্ষণলব্ধ জ্ঞান অগণিত মানুষের মাঝে ছড়িয়ে দেয়।

#

প্রশিক্ষকদের রেঙ্ক ব্যাচ প্রদান করেছেন জেলা কমান্ড্যান্ট বগুড়া

সফলতা অর্জনে প্রশিক্ষণের প্রয়োজন। দেশের প্রত্যেকটি মানুষের প্রশিক্ষণ গ্রহণ করা জরুরী।
নব নিয়োগপ্রাপ্ত উপজেলা প্রশিক্ষকগণ প্রশিক্ষণ শেষ কর্মস্থলে যোগদানের প্রাক্কালে বগুড়া জেলার জেলা কমান্ড্যান্ট,মুহাম্মদ মেহেদী হাসান,পিএএম
প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

গত ২০ আগস্ট, বগুড়ার মালতিনগরস্থ জেলা কমান্ড্যান্টের কর্যালয়ে সদ্য প্রশিক্ষণ সম্পন্নকারি টিআই দের নিয়োগপত্র প্রদান ও র‍্যাঙ্ক-ব্যাজ পরিধান অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন সার্কেল এডজুটেন্ট জাহিদ হোসেন ও সংশ্লিষ্ট উপজেলার ইউএভিডিও গণ। বক্তাগণ বলেন, বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী দেশের সর্ববৃহৎ শৃঙ্খলা বাহিনী। দেশের বিপুল জনগোষ্ঠির নিরাপত্তা ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

দৈনিক আজাদী টিভি 618179149119860

সারাদেশে রয়েছে এ বাহিনীর প্রায় ৬১ লক্ষ স্বেচ্ছাসেবী আনসার ও ভিডিপি সদস্য-সদস্যা। তৃণমূল পর্যায়ে এ সকল আনসার ভিডিপি সসদ্য-সদস্যাদের পরিচালনায় মাঠপর্যায়ে কাজ করে থাকে উপজেলা আনসার ও ভিডিপি প্রশিক্ষকগন।

সারাদেশের প্রতিটি গ্রামে রয়েছে এ বাহিনীর ৩২ জন পুরুষ ও ৩২ জন মহিলা নিয়ে গঠিত ৬৪ জনের ২ টি প্লাটুন। আর এ সকল তৃণমূল সদস্য-সদস্যাদেরকে উদ্বুদ্ধ করে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা তথা দেশ ও জনগণের কল্যাণে সার্বিক উন্নয়নে প্রত্যেক্ষ ও পরোক্ষভাবে সম্পৃক্ত করাই উপজেলা প্রশিক্ষকদের কাজ।

জাতীয় নিবার্চন থেকে শুরু করে যে কোন স্থানীয় নির্বাচন, দুর্গাপূজায় আইন শৃঙ্খলা রক্ষা, মাদক নিয়ন্ত্রন, নারী ও শিশু পাচার রোধ, ইভটিজিং, সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ দমনে তথ্য সরবরাহের মাধ্যমে প্রশাসনকে সহযোগিতা করে বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্যরা দায়িত্ব পালন করে গুরত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।

প্রধান অতিথি বলেন, একজন দক্ষ প্রশিক্ষক হতে হলে বেশকিছু গুণাবলী অবশ্যই অর্জন করতে হবে। ভদ্রোচিত আচরণ, ধৈর্য, সহনশীলতা,আত্মবিশ্বাস, সাহসিকতা, সততা, নিষ্ঠা, দক্ষতা ও সময়ানুবর্তিতা থাকতে হবে।

তিনি নবনিযুক্ত প্রশিক্ষকদের স্ব স্ব কর্মস্থলে যোগদান করে কর্মদক্ষতা দেখিয়ে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে নিজেকে বিকশিত করে দেশ ও জনগণের কল্যাণে নিজেদের উপর অর্পিত দায়িত্ব পালনের নির্দেশনা প্রদান করেন।

প্রধান অতিথি আরো বলেন “শান্তি, শৃঙ্খলা, উন্নয়ন, নিরাপত্তায় সর্বত্র আমরা” বাহিনীর এই মূল
মন্ত্রকে বুকে ধারণ করে দেশ ও জনগনের কল্যাণে আত্ম নিয়োগ করে বাহিনীর সুনাম
অক্ষুন্ন রাখতে নবীন প্রশিক্ষকদের অগ্রণী ভূমিকা রাখার আহবান জানান।

জেলা প্রশাসক জনাব মোঃ মাহমুদুল আলমের বিরামপুর উপজেলার বিভিন্ন সরকারি অফিস এবং বাস্তবায়নাধীন স্থাপনা/ প্রকল্প পরিদর্শন
আনসার-ভিডিপির ১০ দিন মেয়াদী মৌলিক প্রশিক্ষণের সার্টিফিকেট ও টাকা তুলে দেন রাজশাহী বিভাগের পরিচালকগণ প্রশিক্ষণার্থীদের হাতে

২০১১-২০১৬ | কোনো সংবাদ বা ছবি অন্য কোথাও প্রকাশ করবেন না

Development: Zahidit.Com

ঘোষনাঃ
Translate »