Latest news

বাংলাদেশ সাংবাদিক পরিবার

ডা.রাকিবের মৃত্যুতে শোক / প্রতিবাদ জানান জনাব ডা.মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান ( কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল) ঢাকা।

বুধবার, ১৭ জুন ২০২০ | ৪:০৫ অপরাহ্ণ | 106 বার

ডা.রাকিবের মৃত্যুতে শোক / প্রতিবাদ জানান জনাব ডা.মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান ( কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল) ঢাকা।
ডা.রাকিবের মৃত্যুতে শোক / প্রতিবাদ জানান জনাব ডা.মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান (কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল) ঢাকা।

ডা.রাকিবের মৃত্যুতে শোক / প্রতিবাদ জানান, জনাব, ডা.মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান (কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল) ঢাকা।

জানিনা কাদের জন্য নিজের জীবন বাজি রেখে আজ মানুষদের চিকিৎসা দিচ্ছি। জানিনা কাদের জন্য নিজের পরিবারকে ঝুকির মধ্যে রেখে আজ সাধারণ মানুষের চিকিৎসা দিচ্ছি আমি ও আমার মত হাজার হাজার ডাক্টার, নার্স ও স্বাস্থ্য  সেবা কর্মীরা।

একজন ডাক্টার যদি ওয়ার্ল্ডের সবচেয়ে খারাপ মানুষও হন তারপরেও সে চাইবে না তার রোগী খারাপ হোক, তার রোগী মৃত্যুবরণ করুক। PPH (Post Partum Hemorrhage) হল গর্ভবতী মায়ের বাচ্চা জন্মানোর পর মায়ের রক্তক্ষরণ হওয়া, যেটা ১০০ জন মায়ের বাচ্চা জন্মানোর পর ১-৫ জন মায়ের হতে পারে। এই অবস্থায় আমি একজন ডাক্টার হিসেবে সেই বাচ্চা জন্মদানকারী মায়ের যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ নেয়ার চেষ্টা করতাম,

না পারলে মেডিকেল কলেজে রেফার্ড করে দিতাম। ঠিক একি কাজটি করেছেন খুলনার সাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক বিভাগীয় পরিচালক ডাঃ রাকিব। এই করোনা পরিস্থিতিতে নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ভালভাবেই সিজার সম্পন্ন করেন কিন্তু কয়েক ঘন্টা পর PPH ( বাচ্চা জন্মদানের পর রক্তক্ষরণ) শুরু হলে রাতভর চেষ্টা করেও বিফল হলে পরদিন সকালে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। সেখানে ডাক্টাররা তাকে রক্তক্ষরণ বন্ধ না করতে পারলে ঢাকায় রেফার্ড করে দেন। এবং পথিমধ্যে সে মারা যান। আর এতেই রোগীর লোকেরা এসে ডাঃ রাকিব স্যারকে মেরে মাথায় রক্তক্ষরণ করে খুন করে ফেললো।

আচ্ছা, একটা জিনিস বুঝলাম না, এইখানে ডাঃ রাকিব স্যারের কি দোষ ছিল? আমরা তো ডাক্তার রে ভাই, খোদা তো নই? আমরা কি প্রত্যেক মানুষকে জীবিত করতে পারবো? আর সে তো অপারেশনে কোন ঝামেলা করেন নাই যে সে জন্য তার মাথা ফাটিয়ে তাকে মেরে ফেলতে হবে।

আর কোন ডাক্তারের চিকিৎসায় যদি অবহেলা থেকেও থাকে সেটার জন্য আমাদের দেশে তো বিচার বিভাগ  আছে, তাই না?

কোন কিছুর তোয়াক্কা না করে একজন ডাক্টারকে মেরে ফেলবেন?

অন্য কোন দেশে হলে ডাক্তারকে মেরে ফেলা দুরের কথা, গায়ে হাত দিলেই ২-১০ বছরের জেল হয়ে যেত, ইভেন পাশের দেশ ইন্ডিয়াতেও ১০ বছরের জেলের শাস্তি আইন হচ্ছে।

আমি অত্যন্ত তীব্র ভাষায় এই হত্যাকান্ডের প্রতিবাদ জানাচ্ছি ও দ্রুত বিচারের দাবি জানাচ্ছি। সেইসাথে সরকারকে অনুরোধ করবো স্বাস্থ্য  সেবা দানকারীদের রক্ষায় আইন করুন, না হলে পরবর্তী প্রজন্মের কেউ আর এইদেশে ডাক্টার হওয়ার সপ্ন দেখবে না।

#

গরীবের ডা.

আমি আমার ক্ষুদ্র ডাক্টারি জীবনে যেসব মানুষকে একজন চিকিৎসক হিসেবে নিজের সর্বোচ্চটুকু দেয়ার চেষ্টা করেছি তাদের কাছে কখনই কোন কিছু চাইনি। কিন্তু সবার কাছে আজকে ছোট্ট একটা অনুরোধ করবো। আপনারা একজন বিবেকবান মানুষ হিসেবে যে যেভাবে পারেন এই ঘটনার প্রতিবাদ জানান।
আজ যদি আপনি  প্রতিবাদ না করেন কাল কিন্তুু ডাক্টাররা আপনার জীবন- মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে আর আপনাকে বাচাতে নিজের জীবন বাজি নাও রাখতে পারে।

খানসামায় মেডিকেল অফিসার ডাঃ জয় ও শতাব্দী সাহা তিথির ব্যক্তিগত উদ্যোগে অসচ্ছল মানুষের মাঝে বস্ত্র বিতরন
খানসামায় মেডিকেল অফিসার ডাঃ জয় ও শতাব্দী সাহা তিথির ব্যক্তিগত উদ্যোগে অসচ্ছল মানুষের মাঝে বস্ত্র বিতরন

২০১১-২০১৬ | কোনো সংবাদ বা ছবি অন্য কোথাও প্রকাশ করবেন না

Development: Zahidit.Com

ঘোষনাঃ
Translate »